অনিরুদ্ধ থাপাঃ-একজন ভারতীয় পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়,তিনি বর্তমানে ভারতের পেশাদার ফুটবল লীগের শীর্ষ স্তর ইন্ডিয়ান সুপার লিগের ক্লাব চেন্নাইয়িন এবং ভারত জাতীয় দলের হয়ে মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন। ভারতীয় ফুটবল ক্লাব সেন্ট স্টেফেন্সের যুব পর্যায়ের হয়ে খেলার মাধ্যমে অনিরুদ্ধ ফুটবল জগতে প্রবেশ করেছেন এবং পরবর্তীকালে এআইএফএফ এলিটের যুব দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি ফুটবল খেলায় বিকশিত হয়েছেন। ২০১৬–১৭ মৌসুমে, ভারতীয় ক্লাব চেন্নাইয়িনের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি তার জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ি জীবন শুরু করেছেন; মাঝে তিনি এক মৌসুমের জন্য রাউন্ডগ্লাস পাঞ্জাবের হয়ে ধারে খেলেছেন।

অনিরুদ্ধ থাপা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ঃ-অনিরুদ্ধ থাপা ১৯৯৮ সালের ১৫ই জানুয়ারি তারিখে ভারতের উত্তরাখণ্ডের দেরাদুনে জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন।অনিরুদ্ধ ভারত অনূর্ধ্ব-১৭, ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ভারত অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। ভারতের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে তিনি ১৪ ম্যাচে অংশগ্রহণ করে ৭টি গোল করেছেন।তার বয়স ছিল ২৩ এবং উচ্চতা হল-১.৬৯ মিটার (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি)তার জার্সি নম্বর ১৫ ছিল। করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ভারতীয় মিডফিল্ডার অনিরুদ্ধ থাপা টিম হোটেলেই আলাদা ঘরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে তাঁকে।

২০১৭ সালের ২৪শে আগস্ট তারিখে, মাত্র ১৯ বছর, ৭ মাস ও ৯ দিন বয়সে, ডান পায়ে ফুটবল খেলায় পারদর্শী অনিরুদ্ধ সেন্ট কিট্‌স ও নেভিসের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ভারতের হয়ে অভিষেক করেছেন।৫ নম্বর জার্সি পরিধান করে কেন্দ্রীয় মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছিলেন।ম্যাচটি ভারত ১-১ গোলে ড্র করেছিল।ভারতের হয়ে অভিষেকের বছরে অনিরুদ্ধ সর্বমোট ২ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছেন। ২০১৮ সালের ৯ই সেপ্টেম্বর তারিখে, ২০১৮ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে মালদ্বীপের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত ম্যাচে তিনি ভারতের হয়ে প্রথমবারের মতো অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন ম্যাচটি ভারত ২-০ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করেছিল যেখানে তিনি ৯০ মিনিট খেলেছিলেন। জাতীয় দলের হয়ে অভিষেকের ১ বছর, ৪ মাস ও ১৩ দিন পর, ভারতের জার্সি গায়ে প্রথম গোলটি করেছেন২০১৯ সালের ৬ই জানুয়ারি তারিখে, থাইল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচের ৬৮তম মিনিটে উদন্ত সিংয়ের অ্যাসিস্ট হতে ভারতের প্রথম গোলটি করার মাধ্যমে তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার প্রথম গোলটি করেছেন।