জসপ্রীত জসবীরসিং বুমরাহ ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি দলে তিনি মূলত ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিং করে থাকেন।
ঘরোয়া ক্রিকেটে গুজরাট ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের পক্ষে খেলছেন জসপ্রীত বুমরাহ।ঘরোয়া ক্রিকেটে কিছুদিন খেলার পর তিনি জানুয়ারি, ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরকারী ভারতীয় দলের সদস্য মনোনীত হন।

জসপ্রীত জসবীরসিং বুমরাহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ঃ-জসপ্রীত জসবীরসিং বুমরাহ গুজরাতের আহমেদাবাদে ৬ডিসেম্বর,১৯৯৩ জন্মগ্রহণকারী।(তার বাবার নাম প্রয়াত জসবীর সিং এবং তার মায়ের নাম দলজিৎ কৌর)জসপ্রীত জসবীরসিং বুমরাহ বয়স ২৭ বছর। অতিমারি সংক্রান্ত বিধিনিয়ম ও সমস্ত ক্রিকেটাররা চলতি সিরিজের জন্য বায়ো-বাবলে থাকায় বিয়ের অনুষ্ঠানে ভারতীয় দলে বুমরাহর কোনও সহ খেলোয়াড় বিয়ের অনুষ্ঠানে থাকতে পারেননি। ক্রিকেটার ও বোর্ড আধিকারিকরা পরে কোনও দিন রিসেপশনে থাকবেন বলে জানা গেছে।
আমেদাবাদেই জন্ম ও বেড়ে ওঠা বুমরাহর। বাবার অকাল মৃত্যুর পর তাঁকে ও তাঁর বোনকে প্রতিপালন করেন তাঁর মা। কিশোর ত্রিবেদীর প্রশিক্ষণে ক্রিকেট খেলা শুরু করেন বুমরাহ। একটি বেসরকারি স্কুলের ভাইস-প্রিন্সিপাল বুমরাহর মা।

জানুয়ারি, ২০১৬ সালে ভারতের টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক দলের সদস্য মনোনীত হন। আঘাতপ্রাপ্ত ভুবনেশ্বর কুমারের পরিবর্তে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার এই অংশগ্রহণের সুযোগ ঘটে। ২৩শে জানুয়ারি, ২০১৬ তারিখে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে তার অভিষেক হয়। খেলার অন্তিম পর্বে, শেষ ওভারে বল করে, তিনি ২টি উইকেট তুলে নেন মাত্র ২ রান দিয়ে, যেখানে ইংল্যান্ড আট রান করলেই ম্যাচ জিতে যেতো। ২০১৭ সালের নভেম্বরে, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তাকে ভারতের টেস্ট দলে নেওয়া হয়। ২০১৭ শ্রীলঙ্কা সফরে, পাঁচ বা তার কম ম্যাচের একটি দ্বিপাক্ষিক ওডিআই সিরিজে কোনও দ্রুতগতির বোলার হিসাবে সবচেয়ে বেশি উইকেট (১৬) নেন বুমরাহ।২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে নো-বল করার পরেও একটি উইকেট ভারতের ঝুলিতে আসার জন্য তাকে বিশেষ কৃতিত্ব দেওয়া হয়।