মাইকেল মধুসূদন দত্ত (Michael Madhusudan Dutt) (২৫ জানুয়ারি ১৮২৪ – ২৯ জুন ১৮৭৩) ঊনবিংশ শতাব্দীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ বাঙালি কবি এবং নাট্যকার ও প্রহসন রচয়িতা। তাকে বাংলার নবজাগরণ সাহিত্যের অন্যতম পুরোধা ব্যক্তিত্ব গণ্য করা হয়। ঐতিহ্যের অনুবর্তিতা অমান্য করে নব্যরীতি প্রবর্তনের কারণে তাকে আধুনিক বাংলা সাহিত্যের প্রথম বিদ্রোহী কবি হিসেবেও অভিহিত করা হয়।

মাইকেল মধুসূদন দত্ত এর জীবনী

১৮২৪ খ্রিস্টাব্দের ২৫ জানুয়ারি বর্তমান বাংলাদেশের যশোহর জেলার সাগরদাঁড়ি গ্রামে মধুসূদন দত্তের জন্ম হয়। তাঁর পিতা ছিলেন আইনজীবী রাজনারায়ণ দত্ত আর মাতা ছিলেন জাহ্নবী দেবী। গ্রামের পাঠশালাতেই তাঁর বিদ্যাশিক্ষার হাতে হাতেখড়ি হয়। সাত বছর বয়সে তিনি কলকাতায় আসেন। খিদিরপুর স্কুলে পড়ার পর মধুসূদন হিন্দু কলেজে ও বিশপস্ কলেজে ভরতি হন। ইংরেজি ভাষায় তিনি লেখেন “The Captive Ladie’ ও ‘Vision of the Past’ নামক দুটি কাব্য। কিন্তু ইংরেজি সাহিত্যজগতে প্রত্যাশামতো খ্যাতি না-পাওয়ায় তিনি বাংলা ভাষায় লিখতে শুরু করেন। এরপর তিনি লিখলেন কালজয়ী কাব্যগ্রন্থ—‘মেঘনাদবধ কাব্য’, ‘বীরাঙ্গনা’, ‘ব্রজাঙ্গনা,’ ‘তিলোত্তমাসম্ভব’ প্রভৃতি কাব্য। তাঁর বিখ্যাত কয়েকটি নাটক হল—‘শর্মিষ্ঠা’, ‘পদ্মাবতী’, ‘কৃয়কুমারী’, ‘একেই কি বলে সভ্যতা, ‘বুড় সালিকের ঘাড়ে রোঁ’ প্রভৃতি। তিনি বাংলায় চতুর্দশপদী কবিতা ও অমিত্রাক্ষর ছন্দেরও প্রবর্তক ছিলেন। এই মহান কবি ১৮৭৩ খ্রিস্টাব্দের ২৯ জুন ইহলোক ত্যাগ করেন।

1 Comment

    […] মাইকেল মধুসূদন দত্ত এর জীবনী | Michael Madhusudan Du… […]

Comments are closed.