রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী (১৮৬৪-১৯১৯) : রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী মাতৃভাষায় জ্ঞানচর্চা ও জ্ঞানবিস্তারের জন্য কৃতি বাঙালির প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিজ্ঞান বিষয়ক পরিভাষা তৈরিতে যত্নবান হন। বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদ থেকে প্রকাশিত রামেন্দ্র রচনা সংগ্রহের ভূমিকায় সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় এবং অনিলকুমার কাঞ্জিলাল লেখেন -“রামেন্দ্রসুন্দর ছিলেন বৈজ্ঞানিক ও দার্শনিক, কিন্তু সর্বোপরি তিনি ছিলেন শিল্পী। স্বীয় রচনাতে তিনি এই তিন রূপেই আত্মপ্রকাশ করিয়াছেন। বৈজ্ঞানিক-দাশনিকের রাগমুগ্ধ বুদ্ধির উত্তাপহীন দীপ্তি এবং শিল্পীর সুমিত সৌন্দর্যবােধ – sweetness and light -রামেন্দ্রসুন্দরের রচনাতে যুগপৎ এই দুইয়েরই সমাবেশ ঘটিয়াছে।”

রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী

ইমেজ – উকিপিডিয়া

রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী রচিত গ্রন্থগুলির মধ্যে রয়েছে প্রকৃতি, ‘জিজ্ঞাসা’, ‘বঙ্গলক্ষ্মীর ব্রতকথা’, ‘পদার্থবিদ্যা”, “বিচিত্রজগৎ, ‘নানাকথা’, “ভূগােল’, কর্মকথা’, “জগৎকথা’ প্রভৃতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *