শিশিরকুমার মিত্র : শিশির কুমার মিত্র (২৪ অক্টোবর ১৮৯০- ১৩ আগস্ট ১৯৬৩) ছিলেন একজন ভারতীয় বাঙালি পদার্থবিদ। ভারতীয় উপমহাদেশে বেতার যোগাযোগ সম্পর্কিত গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাদান শুরু হয় ডক্টর শিশির কুমার মিত্রের হাত ধরে।

শিশিরকুমার মিত্র

শিশিরকুমার ১৯১২ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদার্থবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর পরীক্ষায় স্বর্ণপদক এবং ১৯২০ সালে সি. ভি. রমনের অধীনে গবেষণা করে রেডিও ফিজিক্সে ডি. এস. সি পান। প্রাথমিক কর্মজীবন কাটে বাংলা ও বিহারের বিভিন্ন কলেজে অধ্যাপনায়।

শিশিরকুমার মিত্র

প্যারিসে সর্বোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ডক্টরেট ডিগ্রি লাভের পর কিছুদিন মাদাম কুরির গবেষণাগারে কাজ করার বিরল সুযােগের অধিকারী শিশিরকুমার ১৯২৩ সালে দেশে ফিরে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিজ্ঞানের খয়রা অধ্যাপক পদে যােগদান করেন। ১৯৩৫ সালে বিলেতে রেডিও ফিজিক্সের উচ্চতর প্রয়ােগিক শিক্ষা লাভ করে দেশে ফিরে একটি রেডিও গবেষণা কেন্দ্র স্থাপনের জন্য সচেষ্ট হন এবং বহু সংগ্রামের পর ১৯৪২ সালে ভারত সরকারের শিল্প ও বিজ্ঞান গবেষণা কমিটির অনুমােদন লাভ করে তার স্বপ্নের প্রতিষ্ঠান। ১৯৪৫ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরে রেডিও ফিজিক্স অন্তর্ভুক্তির কৃতিত্ব শিশিরকুমারেরই প্রাপ্য। ১৯৫৮ সালে F.R.S.(Fellow of the Royal Society) সম্মানলাভ করেন। আয়নমণ্ডলে বেতারতরঙ্গীয় আবেশ সংক্রান্ত গবেষণায় অসামান্য কৃতিত্বে মুগ্ধ হয়ে অস্ট্রেলিয়ার এক সংস্থাতাকে অত্যাধুনিক একটি আয়ােনােস্ফিয়ার মাপক যন্ত্র উপহার দেয় এবং স্বদেশব্রতী শিশিরকুমার সেটি কলকাতার উপকণ্ঠে হরিণঘাটায় স্থাপন করেন। ১৯৫১-৫৩ এশিয়াটিক সােসাইটির এবং ১৯৫৪-৫৫ সালে ভারতীয় বিজ্ঞান কংগ্রেসের সভাপতির পদ তিনি অলংকৃত করেছিলেন। আন্তর্জাতিক বিজ্ঞানীমহলে সমাদৃত তাঁর রচিত একটি গ্রন্থ হল The Upper Atmosphere

সম্মান ও পুরস্কার
ব্রিটিশ এম্পায়ারের সদস্য (MBE), ১৯৩৮
রয়েল সোসাইটির ফেলো, ১৯৫৮
এশিয়াটিক সোসাইটির ফেলো (FASB)
ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য কালটিভেশন অব সায়েন্স (FIAS; ১৯৪৩)

1 Comment

    […] শিশিরকুমার মিত্র […]

Comments are closed.