সাইনা নেহওয়ালঃ- রাজীব গান্ধী খেলরত্নধারী ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। ৭ই এপ্রিলের সর্বশেষ র‍্যাংকিং অনুযায়ী বিশ্ব ব্যাডমিন্টন সংস্থার সর্বশেষ র‌্যাংকিংয়ে তিনি বিশ্বের ২ নং খেলোয়াড় হিসেবে আসীন রয়েছেন।প্রথম ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকা খেলোয়াড় হিসাবে কমনওয়েলথে জোড়া সোনা জিতলেন হায়দারবাদী। অনেক কিছুর জবাব দেওয়া গেছে। এখনও অনেকটা বাকি। বাকি সময়টা এই ফিটনেস ধরে রাখারটাই এখন চ্যালেঞ্জ বলে জানিয়েছেন সাইনা নেহওয়াল। গোল্ড কোস্ট কমনওয়েলথ যেন পুর্নজন্ম দিল এই হায়দরাবাদী শাটলারকে।ভারতের ১ম খেলোয়াড় হিসেবে তিনি অলিম্পিক পদক জয় করেন। ৪ আগস্ট, ২০১২ তারিখে তিনি লন্ডনে অনুষ্ঠিত অলিম্পিকে ব্রোঞ্জপদক জয় করেন।

সাইনা নেহওয়াল এর গুরুত্বপূর্ণ তথ্যঃ

-সাইনা নেহওয়াল(জন্মঃ ১৭ মার্চ ১৯৯০ (বয়স ৩১)Dhindar, হিসার, হরিয়ানা
বাসস্থানঃ  হায়দরাবাদ, অন্ধ্রপ্রদেশ
উচ্চতাঃ ১.৬৫ মি (৫ ফু ৫ ইঞ্চি)
ওজনঃ  ৬০ কেজি
দেশঃ  ভারত
যে হাতে খেলেনঃ ডানহাতে
উপাধিঃ 2009 Indonesia Super Series, 2010 Singapore Super Series, 2010 Indonesia Super Series, 2010 Hong Kong Super Series, Chinese Taipei Open, 2010 India Open Grand Prix Gold, Swiss Open 2011, Swiss Open 2012, 2012 Indonesia Super Series Premier, ২০১২ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক্‌স 2012 Denmark Open Super Series Premiere।

ইংল্যান্ডে ইতিহাস গড়লেন সাইনা নেহওয়াল। ভারতের প্রথম মহিলা ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় হিসাবে অল ইংল্যান্ড ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌছলেন তিনি।তারা উভয়েই হরিয়ানার ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। বিদ্যালয় জীবনের প্রথম কয়েক বছর হিসারের ক্যাম্পাস স্কুল সিসিএস এইচএইউ-তে কাটান। ড. হরভির সিং নেহওয়াল চৌধুরী চরণ সিং হরিয়ানা এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটিতে চাকুরী করেছিলেন এবং তখন থেকেই তাদের আবাস বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গড়ে ওঠে। পরবর্তীতে বিজ্ঞানী হিসেবে ড. হরভির সিং হায়দরাবাদের তৈলবীজ গবেষণা পরিদপ্তরে স্থানান্তরিত হলে সাইনাও সেখানেই শৈশবের বছরগুলো অতিক্রমণ করেন। বিশ্ব ব্যাডমিন্টন অঙ্গনে তার এ পদচারণায় ড. হরভির সিং এবং মা উষা নেহওয়াল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ও প্রভাবান্বিত করেন। সাইনা ভারতের ব্যাডমিন্টনের ইতিহাসে শীর্ষস্থানীয় মহিলা খেলোয়াড় ছিলেন। ২০১২ সালে সাংবাদিক ও সাবেক এনডিটিভি সম্পাদক টি. এস. সুধীর সাইনা নেহওয়ালের উপর একটি জীবনীগ্রন্থ রচনা করেন।অল ইংল্যান্ড ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম রাউন্ডের বাধা টপকালেন অধিকাংশ ভারতীয় শাটলার। দেশের এক নম্বর মহিলা শাটলার সাইনা নেহওয়াল সিঙ্গলসে ইন্ডোনেশিয়ার বেলাট্রিক্স মানুপত্তিকে স্ট্রেট গেমে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে জায়গা পাকা করলেন সাইনা জেতেন ২১-৮, ২১-১২ গেমে।প্রথম গেম সেই ফর্মের ঝলকও পাওয়া যায়।যার ফলে প্রথম গেমটি নিজের দখলে নেন সাইনা। কিন্তু লিড ধরে রাখতে পারেননি। বাকি দুটি গেমে মারিনের সামনে দাঁড়াতেই পারলেন না ভারতের এক নম্বর শাটলার। অবশেষে রানার্স আপ হয়ে ইতিহাস অধরা রয়ে গেল সাইনার। প্রথম ভারতীয় মহিলা শাটলার হিসাবে অল ইংল্যান্ড চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের হাতছানি ছিল সাইনার সামনে।

 

রাজীব গান্ধী খেলরত্নধারী ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। ৭ই এপ্রিলের সর্বশেষ র‍্যাংকিং অনুযায়ী বিশ্ব ব্যাডমিন্টন সংস্থার সর্বশেষ র‌্যাংকিংয়ে তিনি বিশ্বের ২ নং খেলোয়াড় হিসেবে আসীন রয়েছেন।প্রথম ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকা খেলোয়াড় হিসাবে কমনওয়েলথে জোড়া সোনা জিতলেন হায়দারবাদী। অনেক কিছুর জবাব দেওয়া গেছে। এখনও অনেকটা বাকি। বাকি সময়টা এই ফিটনেস ধরে রাখারটাই এখন চ্যালেঞ্জ বলে জানিয়েছেন সাইনা নেহওয়াল। গোল্ড কোস্ট কমনওয়েলথ যেন পুর্নজন্ম দিল এই হায়দরাবাদী শাটলারকে।ভারতের ১ম খেলোয়াড় হিসেবে তিনি অলিম্পিক পদক জয় করেন। ৪ আগস্ট, ২০১২ তারিখে তিনি লন্ডনে অনুষ্ঠিত অলিম্পিকে ব্রোঞ্জপদক জয় করেন।