হার্দিক হিমাংশু পান্ডিয়া একজন ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার তিনি ঘরোয়া ক্রিকেটে বরোদা ক্রিকেট দলের হয়ে এবং ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) মুম্বই ইন্ডিয়ানসের হয়ে ক্রিকেট খেলেন।হার্দিক ব্যাটিং করেন ডান হাতে এবং ডান হাতেই ফাস্ট মিডিয়াম বোলিং করেন। তিনি ক্রিকেটার ক্রুনাল পাণ্ড্য ছোটো ভাই। ১৯৯৩ সালের ১১ অক্টোবর গুজরাতের সুরাটে জন্মগ্রহণ করেন হার্দিক পাণ্ড্য। তার বাবা হিমাংশু পাণ্ড্য সেই শহরে একটি ছোটো কার ফাইনান্স ব্যবসা চালাতেন।

হার্দিক হিমাংশু পান্ডিয়া গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ঃ- হার্দিকের যখন পাঁচ বছর বয়স তখন তিনি তার দুই ছেলেকে (হার্দিক ও ক্রুনাল) ক্রিকেটে ভালোভাবে প্রশিক্ষিত করে তোলার জন্য সেই ব্যবসা গুটিয়ে চলে আসেন বড়োদরা ষরে। সেখানে তিনি তার ছেলেদের ভর্তি করে দেন কিরণ মোরের ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে। আর্থিকভাবে খুব একটা সচ্ছল না হওয়ায় পাণ্ড্য পরিবার গোরওয়া অঞ্চলে একটি ভাড়া বাড়িতে থাকতেন এবং দুই ভাই একটি ব্যবহৃত গাড়িতে করে ক্রিকেট মাঠে খেলতে যেতেন। হার্দিক এমকে হাই স্কুলে নবম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেন এবং তারপর ক্রিকেটের প্রতি মনোনিবেশ করার জন্য লেখাপড়ায় ইতি টানেন।(তার বাবার নাম ছিলো হার্দিক পান্ডিয়া এবং তার মায়ের নাম ছিলো নলিনী)পাণ্ড্য হার্দিক হিমাংশু পান্ডিয়া বয়স ২৭বছর।

২০১৫ সালে আইপিএল এ প্রথমবার খেলার সুযোগ হয় হার্দিকের। আইপিএল নিলামে ভিত্তি মূল্য ১০ লক্ষ টাকায় তাকে কেনে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এর মতো বোলিং লাইনআপ সমন্বিত কলকাতা নাইট রাইডার্সএর বিরুদ্ধে মুম্বাইতে ৩১ বলে ৬১ রান করে দলকে জেতাতে বিশেষভাবে সাহায্য করেন। হার্দিকও সেই ট্যুর্নামেন্টে দ্বিতীয় ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কার পেয়েছিলেন।২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে বরোদা ক্রিকেট দলের হয়ে অপরাজিত ৮৬ সালের ইনিংস খেলেন হার্দিক। সেই ইনিংসে তিনি আটটি ছয় মেরেছিলেন। বরোদা ক্রিকেট দলও সেই ম্যাচে বিদর্ভ ক্রিকেট দলের বিরুদ্ধে ছয় উইকেটে জয় লাভ করেছিল।