প্রফুল্লচন্দ্র রায় – Prafulla Chandra Ray

প্রফুল্লচন্দ্র রায় – Prafulla Chandra Ray

প্রফুল্লচন্দ্র রায় (Prafulla Chandra Ray) (১৮৬১-১৯৪৪): প্রফুল্লচন্দ্র রায় প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে বিএ পাস করার আগেই গিলক্রাইস্ট বৃত্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ১৮৮২ সালে বিলেতে যান। সেখানে বি এসসি পাস করেন এবং ১৮৮৭ সালে রসায়নশাসত্রে মৌলিক গবেষণার জন্য এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিএসসি ডিগ্রি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের হােপ পুরস্কার পান। ১৮৮৮ সালে দেশে ফেরেন। পরের বছর সহকারী অধ্যাপক হিসেবে […]

Read More
 জগদীশচন্দ্র বসু

জগদীশচন্দ্র বসু

জগদীশচন্দ্র বসু (১৮৫৮-১৯৩৭) : জগদীশচন্দ্র বসু পদার্থবিজ্ঞানে বিশেষ কৃতিত্ব দেখিয়ে বি.এ. পাস করার পরে বিলেতে যান ডাক্তারি পড়তে। ১৮৮৪ সালে বি.এসসি পাস করে দেশে ফিরে আসেন। জগদীশচন্দ্রের প্রথম দিকের গবেষণার বিষয় ছিল তারের সাহায্য ছাড়াই খবর বা সংকেত কীভাবে পাঠানাে যায় তাই নিয়ে। দিনের পর দিন প্রচুর পরিশ্রম করে তিনি এমন একটি যন্ত্র তৈরি করলেন […]

Read More
 রসিকলাল দত্ত

রসিকলাল দত্ত

রসিকলাল দত্ত (জন্ম ১৮৪৪) : কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের এই কৃতি ছাত্র ডিপ্লোমা লাভ করার পর এম ডি-র শেষ পরীক্ষা দেওয়ার আগেই হাওড়ায় প্রাইভেট প্র্যাকটিস শুরু করেন। কুলি জাহাজের চিকিৎসকের কাজ নিয়ে পাড়ি দেন সদর ত্রিনিদাদে। তারপর বিলেতের এবার্ডিন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম বি ডিগ্রি নিয়ে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল সার্ভিসে যােগ দেন। ডাক্তারি পেশায় ঈর্ষণীয় সাফল্যের পাশাপাশি অতন্দ্র […]

Read More
 চারুচন্দ্র ভট্টাচার্য

চারুচন্দ্র ভট্টাচার্য

চারুচন্দ্র ভট্টাচার্য (১৮৮৩-১৯৬১): সহজ, সরল, হৃদয়গ্রাহী বাংলা ভাষায় বিজ্ঞানভিত্তিক রচনার অন্যতম স্রষ্টা রূপে নন্দিত। চব্বিশ পরগনার হরিনাভিতে তার জন্ম হয়। পিতা বসন্তকুমার চট্টোপাধ্যায়। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদার্থবিদ্যায় এম. এ. পাশ করে (১৯০৫) প্রেসিডেন্সি কলেজে অধ্যাপনা করেন (১৯০৫-১৯৪০)। আচার্য জগদীশচন্দ্র বসুকে তিনি শিক্ষক হিসেবে লাভ করেন। তার খ্যাতনামা ছাত্রদের মধ্যে রয়েছেন সত্যেন্দ্রনাথ বসু, মেঘনাদ সাহা, […]

Read More
 গোপালচন্দ্র ভট্টাচার্য

গোপালচন্দ্র ভট্টাচার্য

গোপালচন্দ্র ভট্টাচার্য (১৮৯৫-১৯৮৬) : অবিভক্ত বাংলার ফরিদপুর জেলার মাদারিপুর মহকুমার অন্তর্গত লােনসিংহ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা অম্বিকাচরণ, মা শশীমুখী দেবী। ১৯১৫ থেকে ১৯১৯ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত তিনি প্রথমে পণ্ডিসরে এবং পরে নিজের গ্রামের স্কুলে শিক্ষকতা করেন। তিনি ১৯১৭ খ্রিস্টাব্দে শতদল’ নামে একটি হাতে-লেখা পত্রিকা প্রকাশ করেন। ১৯২১-১৯৭১ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত তিনি বসু বিজ্ঞান মন্দিরে প্রথমে জগদীশচন্দ্র বসুর […]

Read More
 জগদানন্দ রায়

জগদানন্দ রায়

জগদানন্দ রায় (১৮৬৯-১৯৩৩) : নদিয়া জেলার অন্তর্গত কৃয়নগরে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা অভয়ানন্দ রায়। গড়াই-এর মিশনারি বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার মধ্যে দিয়ে কর্মজীবন শুরুকরেন জগদানন্দ। বিজ্ঞান-বিষয়ক প্রবন্ধ রচনার হাতেখড়ি ছাত্রাবস্থাতেই। সাধনা পত্রিকায় প্রকাশিত তার প্রবন্ধের সুত্র ধরেই রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে পরিচিতি। তিনি রবীন্দ্রসান্নিধ্যে আসার পর প্রথমে শিলাইদহ জমিদারির কর্মচারী, ক্রমে রবীন্দ্রনাথের পুত্রকন্যাদের বিজ্ঞান ও গণিতের গৃহশিক্ষক এবং ব্রহ্মচর্যাশ্রমের শিক্ষক […]

Read More
 রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী

রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী

রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী (১৮৬৪-১৯১৯) : রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী মাতৃভাষায় জ্ঞানচর্চা ও জ্ঞানবিস্তারের জন্য কৃতি বাঙালির প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিজ্ঞান বিষয়ক পরিভাষা তৈরিতে যত্নবান হন। বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদ থেকে প্রকাশিত রামেন্দ্র রচনা সংগ্রহের ভূমিকায় সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় এবং অনিলকুমার কাঞ্জিলাল লেখেন -“রামেন্দ্রসুন্দর ছিলেন বৈজ্ঞানিক ও দার্শনিক, কিন্তু সর্বোপরি তিনি ছিলেন শিল্পী। স্বীয় রচনাতে তিনি এই […]

Read More
 অক্ষয়কুমার দত্ত

অক্ষয়কুমার দত্ত

অক্ষয়কুমার দত্ত : উনবিংশ শতাব্দীর বাংলার নবজাগরণ যুগের অন্যতম সাহিত্য সাধক, অক্ষয়কুমার দত্ত তত্ত্ববােধিনী সভার সভ্য এবং কিছুদিন এই সভার সহ-সম্পাদক ছিলেন। ১৮৪০ খ্রিস্টাব্দে তিনি তত্ত্বােধিনী পাঠশালার শিক্ষকের পদে নিযুক্ত হন। ১৮৪১ খ্রিস্টাব্দে তত্ত্ববােধিনী সভা থেকে তাঁর রচিত বাংলায় ভূগােল প্রকাশিত হয়। আগস্ট ১৬, ১৮৪৩ তারিখে তার সম্পাদনায় ব্রাহ্মসমাজ ও তত্ত্ববােধিনী সভার মুখপত্র তত্ত্ববােধিনী পত্রিকা […]

Read More